নগর-মহানগর

রাজধানীর গণপরিবহনে চরম নৈরাজ্য

ঈদুল আজহার বাকী আরো দুইদিন। প্রিয়জনদের সাথে ঈদ করতে রাজধানী ছাড়ছেন অনেকেই। এ সুযোগে দ্বিগুনের চেয়েও বেশী ভাড়া হাকছেন বাসচালকরা।বেশীরভাগ এলাকাতেই বাস পর্যাপ্ত নেই। যেগুলো আছে সেগুলো রুট এড়িয়ে বাস, লঞ্চ টার্মিনাল মুখি রুটে যাতায়াত করছে।শুক্রবার মিরপুর, কল্যাণপুর, মগবাজার, মৌচাক, বাড্ডা সহ বেশ কিছু এলাকায় দেখা গেছে এমন চিত্র।   

মিরপুর থেকে ফার্মগেট হয়ে গুলিস্তান, যাত্রাবাড়ি যায় শিকড় পরিবহন। তবে আজ তারা ছুটছেন শুধুমাত্র সায়দাবাদের উদ্দেশ্যে। গাড়িতে উঠলেই কন্ডাক্টরা বলছেন ভাই শুধু সায়দাবাদ,  পঞ্চাশ ভাড়া  টাকা। অন্যান্য সময়ের তুলনায় বিশ টাকা ভাড়া আদায় করছেন বাসটি। একই চিত্র এই রুটের অন্য আরেক বাস বিহঙ্গ পরিবহনের। বাসটি মিরপুর- ফার্মগেট, গুলিস্তান হয়ে সদরঘাট যায়। আজকে বাসটি শুধু মাত্র সদরঘাটের যাত্রী নিচ্ছে। ত্রিশ টাকার ভাড়া ষাট টাকা নিচ্ছে বাসটি। এছাড়া এক নাম্বার, কল্যাণপুর, টেকনিক্যাল এলাকার বেশ কিছু বাসে দেখা গেছে এমন অনিয়মের।

এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। তারা বলছেন ঈদের সময় সবার চোখ থাকে মহাসড়কে অথচ এ সময় আমাদের চলতে কি কষ্ট হয় সেটা বলে বোঝানো যাবেনা।

 মৌচাক থেকে 6 নাম্বার বাসে পল্টন এসেছেন রুমানা। তিনি সেকালের সময় কে জানালেন, দেখুন না ঈদ কবে, আর আজকে বকশিশ বলে 8 টাকার ভাড়া 15 টাকা নিল।

 আমিন নামে বিহঙ্গ পরিবহনের চালক বলেন, ভাই বেশীর ভাগ বাস ঢাকার বাইরের টিপে। এসময় আমাদেরও বেশী টাকা মালিককে দিতে হয়।এছাড়া পথে ঘাটে তো টাকা দিতে হয়।

 

মন্তব্য