আন্তর্জাতিক

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 537,465 482,424 8,182
বিশ্ব 105,957,358 2,310,170 77,602,804

আসাম নিয়ে সরব ইমরান খান, সমালোচনায় বিজেপি


কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যেই শনিবার নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে আসাম রাজ্য সরকার। যাতে বাদ পড়েছে রাজ্যের ১৯ লাখের বেশি মানুষের নাম। যাদের সিংহভাগই মুসলমান। বিষয়টি নিয়ে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ফের সরব হলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এদিন ইমরান খান বললেন, কাশ্মীর থেকে বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর এনআরসি থেকে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ দিয়েছে। এটা আসলে ভারত থেকে মুসলিমদের বিতাড়িত করার একটা বড় ছক।

মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারে তিনি বলেন, ‘মোদি সরকারের এই মুসলিম তাড়ানোর নীতি সারা পৃথিবীতে সতর্কবার্তা দিচ্ছে। কাশ্মীর থেকে এনআরসি—পুরোটাই মুসলিমদের উৎখাত করার একটা বৃহত্তর কৌশলের অংশ।’

অবশ্য এটাই প্রথম নয়, এর আগে কাশ্মীর নিয়েও মোদি সরকারকে ফ্যাসিস্ট বলে অভিহিত করেন পাক প্রধানমন্ত্রী। তখন ইমরান খান বলেছিলেন, মোদি সরকার নাৎসি পার্টির আদর্শ নিয়ে চলছে।

গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীর থেকে বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা কেড়ে নেয় ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। বিষয়টি নিয়ে শুরু থেকেই সোচ্চার ভূমিকায় রয়েছেন ইমরান খানসহ দেশটির অন্যান্য কর্মকর্তারা। এমনকি কাশ্মীর ইস্যুকে জাতিসংঘেও নিয়ে গেছে পাকিস্তান।

তবে পর্যবেক্ষকদের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ভারতে থাকা মুসলমানদের উস্কে দিতে চাইছেন ইমরান খান। সেইসঙ্গে বিশ্ব মুসলিমের কাছে বার্তা দিতে চেয়েছেন যে, দেখো ভারতের প্রধানমন্ত্রী কতটা মুসলিম বিদ্বেষী।

অন্যদিকে, বিজেপি মুখপাত্রদের মতে, ইমরান খান আসলে এগুলো বলছেন ঘরোয়া রাজনীতিতে টিকে থাকার জন্যই।

মন্তব্য