জাতীয়

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 537,465 482,424 8,182
বিশ্ব 105,957,358 2,310,170 77,602,804

সবুজ আন্দোলনের ১ বছর পূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠিত

 

আজ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রবিবার সকাল ১০.৩০ মিনিটে পরিবেশবাদী সামাজিক সংগঠন “সবুজ আন্দোলনের” এক বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবের ৩য় তলায় আব্দুস সালাম হলে ‘সবুজ আন্দোলনের ১ বছর পূর্তি উপলক্ষে “জলবায়ু সমস্যা ও অনিশ্চয়তায় বাংলাদেশ শীর্ষক” আলোচনা সভা ও অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শহীদুল্লাহ সিকদার। প্রধান আলোচক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সবুজ আন্দোলন পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। আরো উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের মহাসচিব অধ্যাপক এম. মিজানুর রহমান, পরিচালক , মো: মোবারক হোসেন , মো: কামরুজ্জামান, সবুজ আন্দোলন কার্যকরী পরিষদের সভাপতি এড. আবু বকর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক, মোঃ আবুল কালাম আজাদসহ কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীবৃন্দ ।

অনুষ্ঠানে পরিবেশ ও সামাজিক খাতে বিশেষ অবদানের জন্য দেশের ৮ জন বিশিষ্ট নাগরিককে ‘গ্রীনম্যান অ্যাওয়ার্ড ২০১৯’ প্রদান করা হয়। তারা হলেনÑ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার, বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ, কথা সাহিত্যিক কলামিস্ট ও বন্যপ্রাণী বিশারদ আলম শাহীন, নাট্যকার ও পরিচালক মোহন খান, বাংলাভিশনের সিনিয়র সাংবাদিক শারমিন ইব্রাহিম, ডিবিসি নিউজের স্টাফ রিপোর্টার রেদওয়ান আহমেদ, নিউজ২৪ এর ঢাকা জেলা প্রতিনিধি মোঃ নাজমুল হুদা, নরসিংদী প্রেসিডেন্সি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ড. মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ডাঃ মোঃ শহীদুল্লাহ সিকদার বলেন, ‘দেশে রাজনৈতিক অনেক সংগঠন রয়েছে। কিন্তু পরিবেশ রক্ষায় সামাজিক আন্দোলনের জন্য রাজনৈতিক দলগুলির পাশাপাশি সবুজ আন্দোলন দেশে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশা করি। সারা বিশ্বেই আজ জলবায়ু সমস্যা প্রকট হচ্ছে। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে বাংলাদেশ জলবায়ু সংকট মোকাবেলায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে আমি আশা করি।’

অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন সবুজ আন্দোলনের প্রধান উপদেষ্টা জার্মান প্রবাসী শাহাবুদ্দিন মিয়া। তিনি বলেন, ‘সারা বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। বাংলাদেশ এই পরিবর্তনের অন্যতম ভুক্তভোগী একটি দেশ। দেশের প্রতি ভালবাসা থেকে আমাদেরকে এর প্রভাব কমাতে সচেতনতা ও সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।’

প্রধান আলোচক কবিরুল বাশার ডেঙ্গুর ব্যাপকতা লাভের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করে বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এর ফেব্রুয়ারী মাসে রেকর্ড বৃষ্টিপাত হয়েছে। ১৯৫৩ সালের পর আমাদের দেশে এত বৃষ্টিপাত হয়নি। যার ফলে জলাবদ্ধতা তৈরী হয়ে এডিশ মশা ব্যাপক বংশবিস্তার করায় এবার ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব অনেক বেশি হয়েছে। এখনই আমরা সচেতন না হলে ভবিষ্যতে আরো বড় বিপদ আসতে পারে।’

গ্রীণম্যান অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘প্রযুক্তির বিকাশের সাথে আমাদেরকে প্রযুক্তি পণ্যের ব্যবহার শেষে তার বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কথা ভাবতে হবে। দেশে ই-বর্জ্য রিসাইকেলের কোন ব্যবস্থা না থাকায় তা যত্রতত্র পড়ে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি করছে। এ নিয়ে আমাদের এখনই ভাবতে হবে।’

সবুজ আন্দোলনের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন। তিনি বলেন, ‘আমারা সারাদেশে দুই কোটি বৃক্ষরোপনের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছি।  বাংলাদেশকে সবুজ করার আমাদের এ আন্দোলনে ইতিমধ্যে আমরা ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। ইতিমধ্যে আমরা প্রায় ১৫ হাজার সদস্য সংগ্রহ করেছি। ৩০টির অধিক জেলায় কমিটি গঠন করেছি।  আমরা জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সরকারের সহযোগী হতে চাই।’

মন্তব্য