জাতীয়

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 537,465 482,424 8,182
বিশ্ব 105,957,358 2,310,170 77,602,804

বারি’তে দক্ষিণা লে লবণাক্ততা সহিষ্ণু গম ও ডাল ফসল উৎপাদন বিষয়ক কর্মশালা শুরু

 

বাংলাদেশের দক্ষিণা লে অধিক লবণাক্ততা সহিষ্ণু গম ও ডাল ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মধ্যবর্তী গবেষণা পর্যালোচনা ও ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনার উপর তিন দিন ব্যাপী এক কর্মশালা আজ ০১ সেপ্টেম্বর রবিবার বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর সেমিনার কক্ষে শুরু হয়েছে।

বারি’র ডাল গবেষণা কেন্দ্রের আয়োজনে এবং এসিআইএআর, অষ্ট্রেলিয়া ও কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন এর অর্থায়নে প্রকল্পের আওতায় এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিন দিন ব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালক ড. আবুল কালাম আযাদ। বারি’র পরিচালক (ডাল গবেষণা কেন্দ্র) জনাব রইছ উদ্দিন চৌধুরী সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক ড. ওয়ায়েস কবীর, বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালক ড. মো. এছরাইল হোসেন এবং গেষ্ট অব ওনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. এরিক হাটনার, রিসার্চ প্রোগ্রাম ম্যানেজার, এসিআইএআর, অষ্ট্রেলিয়া। কর্মশালায় প্রকল্পের সার সংক্ষেপ উপস্থাপন করেন প্রকল্প প্রধান প্রফেসর উইলিয়াম আরর্সকিন, ইউনির্ভাসিটি অব ওয়েস্টার্ন অষ্ট্রেলিয়া। উক্ত কর্মশালায় এসিআইএআর, ইউনির্ভাসিটি অব ওয়েস্টার্ন অষ্ট্রেলিয়া, সিএসআইআরও, কেজিএফ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বারি’র বিজ্ঞানীসহ দেশী-বিদেশী প্রায় পঁচাত্তর জন বিজ্ঞানী উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বারি’র মহাপরিচালক ড. আবুল কালাম আযাদ বলেন, বাংলাদেশের দক্ষিণা লের ডাল ফসল ও গমের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে লবণ ও জলাবদ্ধতা সহিষ্ণু জাত ও প্রযুক্তির উপর আমাদের গুরুত্বারোপ করতে হবে। তিনি এসিআইএআর, অষ্ট্রেলিয়া ও কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনকে এই প্রকল্পের অর্থায়নের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী দক্ষিণা লের ডাল এবং গমের চাষ বৃদ্ধির জন্য সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের বিজ্ঞানীদের নির্দেশনা প্রদান করেন এবং আশাবাদ করেন যে, এ প্রকল্প যথাযথ বাস্তবায়নে লবণ সহিষ্ণু ডাল ও গম ফসলের জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে দক্ষিণা লে ডাল ফসল ও গমের উৎপাদন ব্যাপক হারে প্রসার লাভ করবে।

কারিগরি সেশনে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিজ্ঞানীগণ তাদের গবেষণা প্রতিবেদন ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন।                                     

 

মন্তব্য