তথ্য-প্রযুক্তি

মোবাইল ব্যবহারের ভিন্ন অভিজ্ঞতা দিতে বাংলাদেশের বাজারে নোকিয়ার নতুন ৭ ফোন


এইচএমডি গ্লোবাল, নোকিয়া ব্র্যান্ড ফোনের নির্মাণ সংস্থা, আজ বুধবার বাংলাদেশের বাজারে মাঝারি রেঞ্জের দুটি অ্যান্ড্রয়েড ফোনসহ নোকিয়া ব্র্যান্ডের সাতটি নতুন হ্যান্ডসেট উন্মেচনের ঘোষণা দিয়েছে। এইচএমডি গ্লোবালের প্যান এশিয়া হেড রাভি কুনওয়ার রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন।

মাঝারি রেঞ্জের দুটি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের একটি নোকিয়া ৭.২। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ ও ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্ষমতার জেইস অপটিক্স। অপরটি নোকিয়া ৬.২। ফোনটিতে রয়েছে পিওর ডিসপ্লে স্ক্রিন, আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্সের নিয়ন্ত্রিত তিন ক্যামেরার সেটআপ। পাশাপাশি দুটি ফোনেই ব্যবহার করা হয়েছে দুই দিনের ব্যাটারি লাইফ যা একসাথে ডিসপ্লে ও ছবি তোলার দারুণ এক অভিজ্ঞতা দিবে। এছাড়া, নোকিয়া ৭.২ ও নোকিয়া ৬.২ তে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড-১০ এবং প্রিমিয়াম নর্ডিক ডিজাইনের শ্বৈল্পিক কারুকাজ।

এইচএমডি গ্লোবালের প্যান এশিয়া হেড রাভি কুনওয়ার বলেন, “বিগত বছরগুলোতে গ্রাহকদের কাছ থেকে পাওয়া ভালবাসা ও সমর্থন বাংলাদেশকে সর্বদা আমাদের কাছে বিশেষ বাজার হিসেবে দাঁড় করিয়েছে।আজ আমরা যেই নতুন স্মার্টফোন দুইটি উন্মোচন করেছি, আমার দৃঢ় বিশ্বাস আমাদের গ্রাহকরা এর অত্যাধুনিক ডিসপ্লে ও ছবি তোলার দারুণ অভিজ্ঞতা উপভোগ করবেন। আমাদের ফোনগুলোকে সুরক্ষিত রাখার প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে গ্রাহকরা পাচ্ছেন তিন বছরের মাসিক সিকিউরিটি প্যাচ আর এছাড়াও দুই বছরের ও এস ( অপারেটিং সিস্টেম) আপডেটের প্রতিশ্রুতিতো থাকছেই।বাংলাদেশ-এর বাজারে নোকিয়া ৭.২ এবং ৬.২ উন্মোচন করতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত”।

নোকিয়া তাদের ফিচার ফোনের সংখ্যাও বাড়িয়েছে। নোকিয়ার সর্বাধিক জনপ্রিয় সব ফিচারসহ চতুর্থ প্রজন্মের নতুন ফিচার ফোন হলো নোকিয়া ১০৫। পুরনো নোকিয়া ফোনে সকল ফিচারের সাথে নতুন নোকিয়া-১০৫ ব্যবহারকারীকে দিবে এক চার্জে সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত কথা বলার সুযোগ। নোকিয়া-২২০ ৪জি-র মাধ্যমে ৪জি এলটিই* ব্যবহার করে এইচডি ভয়েস কল করার সুবিধা পাবেন ব্যবহারকারীরা। সেইসাথে ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে তাদের প্রিয় ওয়েবসাইটগুলি ব্রাউজ করতে পারবেন। এর মধ্যে নোকিয়া ৮০০ টাফ ফোনটিকে স্থায়ীত্ব ও ব্যাটারি লাইফের দিক থেকে বেঞ্চমার্ক বলে দাবি প্রতিষ্ঠানটির। বিরূপ পরিবেশে ব্যবহার্য ফোনটিতে রয়েছে পানি ও ধুলা নিরোধী ফিচার। আউটডোর অ্যাডভেঞ্চারের জন্য ডিজাইন করা এই ৪জি ফোনটিতে রয়েছে আধুনিক প্রযুক্তির গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, ৪জি ব্যবহারের সক্ষমতা, ফেইসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপসহ বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় অ্যাপ। এছাড়া, বিনোদনকে প্রাধান্য দিয়ে নোকিয়া-১১০ মডেলের একটি অত্যন্ত সাশ্রয়ী মূল্যের ফোনও বাজারে আনছে তারা।

 

মন্তব্য