বিশেষ খবর

‘আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্

সম্মাননা পেলেন দেশের বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ১২ জন শিক্ষক

১৯৮১ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড এবং দেশের সর্বাধিক প্রচারিত ও পঠিত দৈনিক প্রথম আলোর যৌথ উদ্যোগে ‘আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা ২০১৯’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রতি  এ অনুষ্ঠানে দেশ গঠনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদানকারী প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সম্মানিত করা হয়।
৪ অক্টোবর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের রুপসী বাংলা গ্র্যান্ড বলরুমে ‘আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা ২০১৯’ অনুষ্ঠানের দেশের সেরা ১২ শিক্ষককে জাতীয় পর্যায়ে গ্র্যান্ড আয়োজনের মাধ্যমে সম্মাননা প্রদান করা হয়। জাতি গঠনের প্রধান কারিগরদের সামাজিক অবস্থান আরও শক্তিশালী করা এবং সমাজে তাদের অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের লক্ষ্যে এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। 
দেশ সেরা ১২ জন শিক্ষক ‘আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা ২০১৯’ পেয়েছেন, যাদের মধ্যে একজন শিক্ষককে দেওয়া হয়েছে আজীবন সম্মাননা। আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন ফরিদপুর উচ্চবিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক জগদীশ চন্দ্র ঘোষ। তিনি ‘তারাপদ স্যার’ নামেই পরিচিত। ১৯৫৩ সালে ফরিদপুরের হিতৈশী স্কুলে যোগদান করলেও পরবর্তী ১৯৫৯ সালে তিনি ফরিদপুর উচ্চবিদ্যালয়ে যোগদান করে এখানেই তার দীর্ঘ দিনের শিক্ষকতা চালিয়ে যান। ২০১৫ সালে তিনি সাংবাদিক গৌতম দাস সম্মাননা পান। দীর্ঘ ৪৩ বছর শিক্ষকতা করে প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা পেয়েছেন যশোরের তারাপদ দাস। তিনি যশোর সম্মিলনী ইনস্টিটিউশনে শিক্ষকতা করেন। 
শিক্ষার্থীদের ‘মা’ বলে ডাকার জন্য সুপরিচিত ময়মনসিংহের বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার প্রিয় শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ২০১৬ সালে বিভাগীয় পর্যায়ে এবং ২০১৭ ও ১৮ সালে জাতীয় পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের সম্মাননা পান। 
দীর্ঘ ৩৫ বছর শিক্ষকতা করে প্রিয় শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নিরুপা দেওয়ান। সারা দেশে মেয়ে ফুটবলাদের জন্য পরিচিত ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার রণসিংহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। সেই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও মেয়ে ফুটবলারদের কারিগর মফিজ উদ্দিন। 
সাতক্ষীরার সাদা মনের মানুষ এবং সিক্স স্যার নামে পরিচিত ৩০ নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মো. আবদুস সালাম। 
শ্রবণপ্রতিবন্ধী হয়েও নিষ্ঠার সাথে টাঙ্গাইলের আউলিয়াবাদ মাজার দাখিল মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করছেন আবুল হাশেম মিয়া। তার এ নিষ্ঠার স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা। বাগেরহাটের কাড়াপাড়া শরৎচন্দ্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক  মো. আসাদুল কবির। 

 

মন্তব্য