সভা-সেমিনার

লায়ন্স ক্লাবের উদ্যেগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠিত

লায়ন্স ক্লাব বাংলাদেশ ও লিও ক্লাব বাংলাদেশের উদ্যেগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও দরিদ্র জনগণের মধ্যে খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মেডেকেল ক্যাম্পে বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষা, চক্ষু পরীক্ষা, রক্ত পরীক্ষা করা হয়। এছাড়াও দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হয়। গত সোমবার লায়ন্স হাসপাতাল প্রাঙ্গনে আয়োজিত ক্যাম্পের উদ্ভোদন করেন লায়ন্স ক্লাব বাংলাদেশের ডিস্টিক গভর্নর নাছিম মাহমদ। সারাদিনব্যাপী এই ক্যাম্পে বিনামূল্যে সকল সেবা দেওয়া হয়। 
ম্যাডিকেল ক্যাম্প ও খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিস্টিক গভর্নর নাছিম মাহমদ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল বিশ্বের সর্ববৃহৎ আন্তর্জাতিক সেবা সংস্থা। যার শিকড় বিশ্বের প্রায় সকল প্রান্তে বিস্তৃত। বিশ্ববাসীকে আকৃষ্ট করা লায়ন্স ক্লাবস ইন্টারন্যাশনাল ১৯১৭ সালে মেলভিন জন্স কতৃক শিকাগোতে প্রতিষ্টিত হয়। অক্টোবর মাসে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার কারনে এই মাসকে স্বরনীয় করে রাখার জন্য অসহায় মানুষের পাশে এসে দাড়ায় এবং বিভিন্ন ধরণের সেবামূলক কর্মসুচি করে থাকি। বিনা মূল্যে চক্ষু চিকিৎসা, ডায়াবেটিস চিকিৎসা, রক্ত পরীক্ষা, দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য বিতারণ, বাসস্থান সামগ্রী প্রদান, নদীভাঙ্গন ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের ক্রাণ সামগ্রী বিতরন, চাষীদের মাঝে বীজ সরবরাহ করা, দরিদ্র ছাত্রদের লেখাপড়ার সুযোগ করে দেওয়াসহ অসংখ্য সেবামূলক কাজ আমরা করে থাকি। এই মাসকে কেন্দ্র করে মানুষের সেবা করার উদ্দেশে বাংলাদেশের বিশ হাজারের বেশি লায়ন ঘর থেকে বের হয়। সেবা প্রদান করার জন্য আমরা গত বছর সারা পৃথীবির ২১২ টি দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছি। আর এসব সেবামূলক কাজ লায়নদের নিজস্ব অর্থায়নে হয়ে থাকে। 
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের উপদেষ্টা লায়ন আবুল বাশার মিন্টু বলেন, আর্ত-মানবতার সেবায় বিশ্বব্যাপী কাজ করে যাচ্ছে লায়ন্স ক্লাব। সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জন্য নিজস্ব অর্থায়নে আমরা জনগণের মৈলিক চাহিদা মিটিয়ে থাকি। পরিশ্রমী সদস্যদের কারণে এ ধরনের সমাজসেবা মূলক পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হয়েছে। 
এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন ক্লাব প্রেসিডেন্ট লায়ন মো. আনিসুর রহমান, লায়ন শামিম রেজা, লায়ন আমির উদ্দীন, লায়ন মনোয়ারা বেগম, লিও এম এইচ এম তানভির, লিও এম বাপ্পি প্রমুখ।

 

 

মন্তব্য