সভা-সেমিনার

স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের শহীদ ডা. মিলনের প্রতি শ্রদ্ধা

নব্বইয়ের দশকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা ডাক্তার মিলনের আত্মত্যাগের মূল্যায়ন করে তার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ-বিসিএল এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গৌতম শীল,সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃনুরু-উছ-সাফা প্লাবন,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি মাহাফুজুর রহমান রাহাত ও সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার বিজয়সহ কেন্দ্রীয় নেত্রীবৃন্দ। উল্লেখ্য যে প্রতিবছর ২৭ নভেম্বর বাংলাদেশে শহীদ ডা. মিলন দিবস পালিত হয়।

১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দের ২৭শে নভেম্বর স্বৈরশাসন বিরোধী আন্দোলনের সময় তৎকালীন সরকারের লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসীদের গুলিতে ডা: শামসুল আলম খান মিলন নিহত হন। এই শোকাবহ ঘটনার স্মরনে ১৯৯১ খ্রীস্টাব্দ থেকে প্রতি বছর শহীদ ডা. মিলন দিবস উদযাপিত হয়ে আসছে। ডা. মিলনের মধ্য দিয়ে তখনকার স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নতুন গতি সঞ্চারিত হয়। এবং অল্প কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এরশাদ সরকারের পতন ঘটে।

বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে, বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে ডা.মিলনের আত্মত্যাগ যুগ যুগ ধরে অনুপ্রেরণা হিসেবে চেতনায় লালন করবে বলে উক্ত সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিশ্বাস করেন। 

মন্তব্য