জাতীয়

কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলেও ভালো ভোট হচ্ছে: রিটার্নিং কর্মকর্তা

 

ভোটে কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলেও এখন পর্যন্ত ভালো ভোট হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন।

তিনি বলেন, ‘সকাল থেকে আমরা যতকেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়েছি সেখানে ভালো সাড়া পেয়েছি।’

আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তবে সকাল থেকে ভোটার উপস্থিতি কম এমন বিষয়টি তার নজরে আনা হলে তিনি বলেন, ‘সকাল থেকে অনেক কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি সন্তোষজনক ছিল। হয়তো কিছু কেন্দ্রে কম। আশা করি, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার আরও বাড়বে।’

কিছু কিছু কেন্দ্রে ইভিএমে ভোটারদের ফিঙ্গার প্রিন্ট মিলছে না এমন বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কিছু কিছু ভোটারের বয়সের কারণে তাদের আঙুলের ছাপে সমস্যা হয়েছে। এ কারণে হয়তো কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে। আমি নিজেও একজন বয়স্ক ভোটারকে এই সমস্যায় পড়তে দেখেছি। পরে আমি নিজেই তা দেখে ঠিক করে দিয়েছি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকার নির্বাচন নিয়ে লিখিতভাবে মাত্র দুটি অভিযোগ এসেছে। এছাড়া মোবাইল ফোনে অনেকগুলো অভিযোগ এসেছে। সবগুলো অভিযোগ আমলে নিয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, আজ শনিবার ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে এবার দুই সিটির ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকার দুই সিটিতে ২ হাজার ৪৬৮টি ভোটকেন্দ্র ও ১৪ হাজার ৪৩৪টি ভোটকক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটিতে ১ হাজার ৩১৮টি ভোটকেন্দ্র ও ৭ হাজার ৮৫৭টি ভোটকক্ষ এবং দক্ষিণ সিটিতে ১ হাজার ১৫০টি ভোটকেন্দ্র ও ৬ হাজার ৫৮৮টি ভোটকক্ষ রয়েছে।

গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ছিল গত ৩১ জানুয়ারি। মনোনয়নপত্র বাছাই ২ জানুয়ারি, প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ছিল ৯ জানুয়ারি। ভোটগ্রহণের তারিখ ৩০ জানুয়ারি থাকলেও ঐ দিন সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সরস্বতী পূজা থাকায় তা পরিবর্তন করে ১ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করা হয়। গত ১০ জানুয়ারি প্রচার শুরু হয়ে বৃহস্পতিবার প্রচার শেষ হলো। মোট ২১ দিন প্রচারের সুযোগ পান প্রার্থীরা।

মন্তব্য