পাঁচমিশালি

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 60391 12804 811
বিশ্ব 6,714,335 3,261,276 393,408

ফোনে কথা বলতে বলতে বসে পড়লেন জোড়া সাপের ওপর

 

কথা বলতে বলতেই বিছানায় সঙ্গমরত সাপের ওপরেই বসে পড়েন গীতা নামের গৃহবধূ। সাপদুটির অব্যর্থ ছোবলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান তিনি। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান গীতা। গত (৫ ফেব্রুয়ারি) অদ্ভুত এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের গোরক্ষপুরের রিয়ানভ গ্রামে।

এনডিটিভির খবরে জানা যায়, গেরস্থের বাড়িতে ঢুকে বিছানার চাদরের সাথে মিশে বসে ছিল দুই খানা বিষাক্ত সাপ। আসলে ঠিক বসেছিল না, সঙ্গমরত অবস্থাতেই ছিল সর্পযুগল। এদিকে, ফোনে কথা বলতে বলতে একটুও খেয়াল না করে সেই সাপ যুগলের ওপরেই বসে পড়েন ওই গৃহবধূ!

খবরে বলা হয়, থাইল্যান্ডে কর্মরত জয় সিং যাদবের স্ত্রী গীতা স্বামীর সঙ্গেই ফোনে কথা বলছিলেন। ফোনে কথা বলতে বলতে তিনি খেয়ালই করেননি কখন একজোড়া সাপ তাদের শোবার ঘরে ঢুকে পড়েছে। গীতার বাড়িতে যে বিছানা পাতা তাতে ছিল একটি প্রিন্টেড চাদর। ওই চাদরের উপরেই উঠে পড়ে ২টি সাপ।

এদিকে, ফোনে কথা বলতে বলতেই নিজের ঘরে ঢোকেন গীতা। ছাপা চাদরে মিশে থাকায় বিছানায় যে আসলে দুই খানা সাপ বসে আছে, তা ঘুণাক্ষরেও টেরও পাননি গীতা। কথা বলতে বলতেই বিছানায় সাপের উপরেই বসে পড়েন তিনি। মুহূর্তেই ঘটে যায় সর্বনাস! সাপদুটির অব্যর্থ ছোবলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান গীতা।

এসময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তাকে দ্রুত স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসা চলতে চলতেই তার মৃত্যু হয়। পরিবারের সদস্যরা এবং প্রতিবেশীরা গীতার ঘরে ফিরে এসে সাপ দু'টিকে বিছানাতেই দেখতে পান। আর যায় কোথায়, সঙ্গে সঙ্গে সাপ দু'টিকে পিটিয়েই মেরে ফেলেন ক্ষুব্ধ প্রতিবেশীরা।

এদিকে, গীতা যখন বুঝতে না পেরে সাপের উপরে বসে পড়েন, সেই সময় আসলে সাপ দুটি সঙ্গমরত অবস্থায় ছিল বলেই নিশ্চিত করেন ভেটেরিনারি বিশেষজ্ঞরা।

মন্তব্য