লাইফস্টাইল

ভাতের মাড় ব্যবহারের কৌশল জেনে নিন

 


বাঙালি ভাত খেতে বেশি পছন্দ করে। সারাদিনে দেশি-বিদেশি যত রকমই খাবার খেয়ে বেড়াক না কেন, দিনে অন্তত একবার তার ভাত চাই-ই-চাই। শুধু তৃপ্তিই নয়, ত্বক আর চুলের স্বাস্থ্য ফেরাতেও ভাতের জুড়ি মেলা ভার! তবে এ ক্ষেত্রে ভাত সরাসরি নয়, ভাতের মাড় কাজে লাগানো যেতে পারে ত্বক আর চুলের পরিচর্যায়।

আসুন এ বিষয়ে সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক...

* গোসলের পানিতে ভাতের মাড় মিশিয়ে স্নান করলে ত্বকের মধ্যে অস্বস্তিকর জ্বালা, চুলকানি থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়।

* ব্রণ সমস্যায় ভুগছেন? তাহলে ভাতের মাড় ঠাণ্ডা করে তুলার সাহায্যে লাগান ব্রণ আক্রান্ত স্থানে। দিনে ২-৩ বার ব্যবহার করলেই ফারাক বুঝতে পারবেন।

* সান ট্যান পড়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গা পুড়ে যায়। পুড়ে যাওয়া জায়গাগুলোতে ঠাণ্ডা ভাতের মাড় লাগালে চলে যায় ট্যান। একইসঙ্গে বাড়বে ত্বকের জেল্লাও।

* শ্যাম্পু করার পর পানি আর ভাতের মাড় মিশিয়ে চুলের গোড়ায় দিন। মিশ্রণটি চুলে দেওয়ার পর ৩-৪ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে চুলের ডগা ফাটার মতো সমস্যা থেকে রক্ষা পাবেন।

এছাড়া মজবুত ও উজ্জ্বল চুল পেতে ব্যবহার করুন ভাতের মাড়।

মন্তব্য