জাতীয়

টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে জাপান সরকার

 


আজ মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর সাথে ঢাকাস্হ জাপানি রাষ্ট্রদূত সচিবালয়ে তার নিজ দপ্তরে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।সাক্ষাৎকালে জাপানি রাষ্ট্রদূত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীকে আসন্ন টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য জাপান সরকারের পক্ষ থেকে  রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।  এ সময়ে  তিনি সাম্প্রতিক সময়ে  ক্রীড়াক্ষেত্রে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং যুব বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় ক্রীড়া  প্রতিমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।  তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন বাংলাদেশি আর্চার রোমান সানা এবারকার অলিম্পিকে গোল্ড মেডেল অর্জন করে ইতিহাস সৃষ্টি করবে।

টোকিও অলিম্পিকে আমন্ত্রণ জানানোয় প্রতিমন্ত্রী জাপান সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, জাপান আমাদের সব থেকে কাছের বন্ধু রাষ্ট্র।  স্বাধীনতার পর থেকেই জাপান বাংলাদেশের বৃহত্তম উন্নয়ন অংশীদার।
শিক্ষা স্বাস্থ্য অবকাঠামোসহ বিভিন্ন বিষয়ে জাপানের  সাথে আমাদের অংশীদারীত্ব রয়েছে।  আমরা যুব ও ক্রীড়ার উন্নয়নেও জাপানের সাথে একযোগে কাজ করতে চাই।  জাপানি রাষ্ট্রদূত প্রতিমন্ত্রীর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, দুই দেশের অভিজ্ঞ কোচ বিনিময়সহ অন্যান্য  বিষয়ে লিখিত প্রস্তাবনা পেলে  সমঝোতা স্মারক চুক্তির বিষয়টি তার সরকার ইতিবাচকভাবে বিবেচনা করবে।

উল্লেখ্য, এ বছরের জুলাই এর ২৪ তারিখে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে টোকিও অলিম্পিকের পর্দা উঠবে।

সাক্ষাৎকালে  যুব ও ক্রীড়া সচিব জনাব মোঃ আকতার হোসেন উপস্হিত ছিলেন।

মন্তব্য