সারা বাংলা

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 537,465 482,424 8,182
বিশ্ব 105,957,358 2,310,170 77,602,804

মুজিববর্ষ উপলক্ষে গৃহহীন পরিবারের জন্যে ৩০০ টি ঘর নির্মাণকাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে ভূমি ও গৃহহীন ৩০০ পরিবারের জন্য ঘর তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এসব ভূমি ও ঘর উপকারভোগীদের বুঝিয়ে দেওয়ার কার্যক্রম আগামী শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এদিকে অপেক্ষার প্রহর গুনছে প্রধানমন্ত্রী উপহার পেতে যাওয়া গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারগুলো। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো মানুষগুলো জায়গাসহ নতুন ঘর পাওয়ার আনন্দে আত্মহারা।
দ্রুতসময়ের মধ্যে ঘর নির্মাণ সম্পন্ন করার জন্য বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছেন উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ‘আশ্রয়নের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার’ এ স্লোগান নিয়ে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশিদ্রোন, শ্রীমঙ্গল সদর, ভূনবীর ও মির্জাপুর ইউনিয়নে ৩০০টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে ১০০টি ঘর নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট ঘরগুলো খুব অল্প সময়ের মধ্যে নির্মাণ শেষ হবে বলে জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, এই প্রকল্পের আওতায় ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রতিটি বাড়ি নির্মাণ করা হবে। ৪৩৫ বর্গফুটের প্রতিটি ঘরে রয়েছে দুটি বেডরুম, টয়লেট, রান্নাঘর ও একটি বারান্দা। ঘর ও আশপাশের জমি মিলিয়ে দুই শতক জমি দেওয়া হবে ভূমিহীন ও গৃহহীন প্রতিটি পরিবারকে। টিনশেডের এই ঘরে একটি পরিবার স্বাচ্ছন্দে বসবাস করতে পারবে।
এ প্রসঙ্গে শ্রীমঙ্গল উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা সরকারের খাস জমিতে ভূমিহীন ও গৃহহীন হতদরিদ্রদের জন্য ৫ কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩০০টি ঘর নির্মাণ করছি। এখন পর্যন্ত ১০০ টি ঘরের কাজ সম্পুর্ন হয়েছে। বাকি ২০০ টি ঘরের কাজ কিছুটা বাকি রয়েছে প্রতিটি ঘরের ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। কাজের মান যেন ঠিক থাকে সেজন্য সার্বক্ষণিক তদারকি করা হচ্ছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘ঘর প্রদানের জন্য উপকারভোগী নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমরা সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করেছি। যারা প্রকৃত ভূমিহীন তারাই এই সুবিধার আওতায় এসেছেন। খুব শীঘ্রই তাদের মাঝে ঘরের দলিল ও চাবি হস্তান্তর করা হবে।’

মন্তব্য