সারা বাংলা

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 707,362 597,214 10,081
বিশ্ব 139,771,067 118,808,535 3,001,702
CTG News

সকালের সময়ে নিউজের জেরে

পটিয়ায় ভূ-গর্ভস্ত পানি উত্তোলন ও পরিবেশ দূষণ বন্ধে মানব বন্ধন

জাতীয় দৈনিক সকালের সময়ে ফুলকলির বিষাক্ত বর্জ্যে দূষিত পটিয়া, ফসল ফলছেনা সহস্রাধিক একর জমিতে শির্ষক নিউজ প্রকাশের পর চট্টগ্রামের পটিয়ায় ভূ-গর্ভস্ত পানি উত্তোলন ও পরিবেশ দূষণ বন্ধে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) এক মানব বন্ধনের  আয়োজন করে। বৃহস্পতিবার (৪ই মার্চ) সকালে উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের পাচঁুরিয়ার মোড়ে এডভোকেট মুজিবুর রহমান খানের সভাপতিত্বে এক মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানব বন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, লেখক ও কলামিস্ট মুসা খান, মো. সেলিম মাষ্টার, নুরুল হক, মন্জুরুল আলম, পটিয়া আ’লীগের সহ-সভাপতি মো. ইউনুছ খান জসিম, সুবেদার নবী হুছনে আরা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মো. হাসানুজ্জমান বাবু, আলী নেওয়াজ চৌধুরী, মাষ্টার আশরাফ উদ্দঅন আহমেদ ও উপজেলা বেলা’র সদস্যবৃন্দ। বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে শিল্প কলখারনায় ভূগর্ভস্ত থেকে পানি উত্তোলন করার কারণে এই ইউনিয়নের মানুষ ৮’শ ফুট লেয়ারেও পানি পাচ্ছেনা। তারা বলেন, হাইকোর্ট থেকে নির্দেশনা আছে যতদিন পর্যন্ত এই পানির সমস্যা সমাধান হবে না ততদিন পর্যন্ত শিল্প কারখানায় ভূগর্ভস্ত থেকে পানি উত্তোলন করতে পারবেনা। কিন্তু দূঃখজনক হলেও সত্য শিল্প কারখানা গুলোতে ভূগর্ভস্ত থেকে পানি উত্তোলন করা বন্ধ হয়নি। সুপেয় পানির ব্যবস্থা দ্রুত করা না হলে এ ইউনিয়নে নেমে আসবে চরম দূর্ভিসহ অবস্থা। তারা বলেন, ফুলকলি এবং শাহ আমানতের বর্জ্য গুলো সার্জেন্ট মহিউর আলম খালেই পড়ছে। এই খালের পানি এতটাই বিষাক্ত এবং দুর্গন্ধ যে নাকে রুমাল চেপে প্রায় ৮ কিলোমিটার সড়কপথ পাড়ি দিতে হয়। জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. ইদ্রছি বলেন, ফুলকলি ও শাহ আমানত প্রতিষ্ঠান তরল বর্জ্য পরিশোধনাগার (ইটিপি) অকার্যকর রেখে অপরিশোধিত বর্জ্য পার্শ্ববর্তী সার্জেন্ট মহিউর আলম খালে নির্গমন করে পরিবেশ ও প্রতিবেশের ক্ষতি সাধন করে আসছে। খালের পানি দিয়ে উপজেলার উজিরপুর, নাইখাইন, গৈড়লা, লড়িহরা, দক্ষিণ হুলাইন, এয়াকুবন্ডী, তিয়ারকুল, পৌর এলাকার উজিরপুর, উনাইনপুরা ও পৌরসভার আল্লাই এলাকার কয়েকশ’ কৃষক ধানি জমিতে প্রতি মৌসুমে চাষাবাদ করে থাকেন। হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন,  স্থানীয়রা জানান, বেশ কয়েকটি শিল্প-কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য খালে পড়ে পরিবেশের মারাত্মক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। তাছাড়া দূষিত পানির কারণে তিন শতাধিক একর ধানি জমিতে বোরো চাষাবাদ বন্ধ হয়ে পড়েছে। বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, ভূগর্ভস্ত থেকে পানি উত্তোলন বন্ধ ও এলাকাবাসীর জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা এখন খুব গুরুত্বপূর্ন বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। তিনি আরো বলেন, পরিবেশ দূষণ বন্ধে শিল্প কারখানা গুলোতে ইটিভি প্লান্ট কতটুকু কার্যকর তা কতিয়ে দেখতে হবে। তিনি আরো বলেন, কারখানার বিষাক্ত বর্জ্য খালে পড়ার কারণে পরিবেশের মারাত্নক ক্ষতি হচ্ছে।

মন্তব্য