শিক্ষা

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 297,083 182,875 3,983
বিশ্ব 23,728,063 16,193,743 814,657

শরতের শুভ্রতায় ঢাকা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

গ্রীষ্মের রোদে পোড়া সকাল কিংবা বর্ষার বর্ষণমুখর সন্ধ্যা থেকে কিছুটা ভিন্ন শরৎ। ইতোমধ্যে, বর্ষার রেশ নিয়ে শরৎ ঋতুদের রঙ্গশালায় উপস্থিত হয়েছে। ঝকঝকে নীল আকাশের বুকে ধবধবে সাদা মেঘের মেঘমুক্ত পরিষ্কার আকাশ, ঝিরিঝিরি করে বয়ে যাওয়া হাওয়া যে কারো মনকে করে দিতে পারে রমণীর খোলা চুলের মতো এলোমেলো!
 
উত্তর গোলার্ধে সেপ্টেম্বরে ও দক্ষিণ গোলার্ধে মার্চ মাসে শরৎকাল প্রকৃতিতে আসে। এ বছর কোন গোলার্ধেই সুষ্ঠ পরিবেশ নেই শুভ্রতার ঋতু শরৎকে উপভোগ করার জন্য। করোনার প্রকোপে কেমন যেন স্থবিরতা নেমে এসেছে প্রকৃতিতে! 
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ও স্থবির হয়ে আছে। এই স্থবিরতা বেশ কয়েক মাস ধরে থাকলেও শরৎ সেই স্থবিরতার মাঝে নতুন প্রাণ দিয়েছে। লাল মাটি, সবুজ গাছপালায় ঢাকা এই ক্যাম্পাসে এখন কাশফুলের শুভ্রতা বিচরণ করছে চারদিকে। নীল আকাশের মাঝে তুলার মতো উড়ে যাওয়া সাদা মেঘগুলো বোধ হয় মাটিতে নেমে এসেছে কিছু সময়ের জন্য। কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ থেকে শুরু করে শহীদ মিনারের আশেপাশে সবদিকেই কাশফুলের ছড়াছড়ি!
 
 কিছু শিক্ষার্থী এই সময়ও ক্যাম্পাসে অবস্থান করছে। তাদের মুঠোফোনের ক্যামেরায় বন্ধি শরৎকে ছুঁয়ে যায় বাড়িতে অবস্থান করা অন্য শিক্ষার্থীদের। ক্যাম্পাসে অবস্থান করা তেমনি একজন শিক্ষার্থী বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী আরাফাত রাফি। তিনি বলেন, শরৎকালে শিউলি, কাশফুল সহ আরো হরেক রকমের ফুল ফুটলেও শরৎ বলতে সবাই কাশফুলকেই বুঝে থাকে। কাশফুলের শরৎ সুন্দর। লাল মাটির কুবি ক্যাম্পাসে সেটা এক অনন্য মাত্রা পেয়েছে মাত্র।
 
গত বছর শরতের প্রতীক এই কাশফুলের মাঝেই বন্ধুরা মিলে ঘুরে বেড়িয়েছি কতো! করোনার জন্য প্রকৃতির এত সুন্দর সময়টাকে ছুঁয়ে দেখা হলো না। ক্যাম্পাস খোলা থাকলে  হয়তো আগের মতোই শিক্ষার্থীরা ক্লাস শেষে শরৎকে উপভোগের জন্য কাশফুলে হাত ছোঁয়াতে চাইতো! 
এই দুঃসময় কেটে যাক, মৃত্যু যাত্রা থেমে যাক। এখনকার মতো সতেজ, সুন্দর পৃথিবীতে আবার উপভোগ করবো কুবির শরতের শুভ্রতা।

মন্তব্য