বিশেষ খবর

সকালের সময় 'কোভিড-১৯' আপডেট
# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ 537,465 482,424 8,182
বিশ্ব 105,957,358 2,310,170 77,602,804

কেন এতো অপমৃত্যু?

ঢাকাসহ সারাদেশে রেলে কাটাপড়ে প্রতিবছর নিহত হচ্ছে অসংখ্য মানুষ। হঠাৎ এই নিহতের হার বেড়ে যাওয়ায় উদ্বিগ্ন সংশ্লিষ্ট বিভাগের অনেকে। একের পর এক কেন এতো অপমৃত্যু এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ের ডিআইজি মো. শাহ আলম বলেন, ‘এ ডিপার্টমেন্টে আমি নতুন জয়েন করেছি, তবুও প্রতিটি ডেডবডির অধিকতর পরীক্ষা নিরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে’। তিনি আরো বলেন, রেলে কাটা পড়ে মৃত্যুর বিষয়ে যদি কোনো রহস্য থেকে থাকে তাহলে তা ফাইন্ডআউট করতে অন্তত আমার কিছুদিন সময় লাগবে। 
জানা গেছে, এতদিন অপমৃত্যুর বেশিরভাগ মামলায় অনুদঘাটিত থাকায় অপরাধ সংগঠনের সুযোগ থাকছে বলে মনে করছেন অপরাধ বিশেষজ্ঞরা। ফলে ছিন্নবিচ্ছিন্ন লাশগুলো বেওয়ারিশ হিসেবে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামের সহযোগিতায় দাফন করা হচ্ছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস গত সপ্তাহে সান্তাহার রেলওয়ে থানাধীন জামালগঞ্জ রেলস্টেশনের উত্তর পাশের বস্তি এলাকা অতিক্রমের সময় এক যুবক কাটা পড়ে মারা যায়। রেল কর্তৃপক্ষ বলছে চলন্ত ট্রেনের দরজা থেকে পড়ে অজ্ঞাত এই যুবকের মৃত্যু হয়েছে।
এর আগের শনিবার সন্ধ্যায় পাঁচানীপাড়া নামক স্থানে ট্রেনে কাটা ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন ও শুক্রবার রাতে স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম থেকে অজ্ঞাত পৃথক আরও দুটি লাশ উদ্ধার করে রেল পুলিশ। পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, গত সাত মাসে ট্রেনে কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে ২৫টি। এরমধ্যে ১৪ লাশেরই কোনো সন্ধান মিলেনি।
রেলওয়ে পুলিশের অপমৃত্যু রেজিস্ট্রার হিসাব অনুযায়ি, গত বছরের জুন থেকে চলতি বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সাত মাসে সান্তাহার রেলওয়ে থানাধীন এলাকায় ট্রেনে কাটা অপমৃত্যু মামলা হয়েছে ২৫টি। এর মধ্যে ১১ লাশের পরিচয় মিলেছে। বাকি ১৪টি বেওয়ারিশ হিসেবে আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের সহযোগিতায় সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
রেলওয়ে থানা পুলিশের দাবি, অসাবধানতায় রেল লাইন পারাপার, ট্রেনের ছাদে ও দরজায় ভ্রমণ, চলন্ত ট্রেনে ওঠানামা, ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা, কুয়াশায় ট্রেন দেখতে না পাওয়া, ট্রেনের ছাদে ঘুমিয়ে পড়া, ট্রেন দুর্ঘটনা ও বগির সংযোগস্থলে বসে ভ্রমণ এবং থামার আগেই ট্রেন থেকে নামার চেষ্টা এসব দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ। সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, সম্প্রতি এ স্টেশনের আওতায়ভুক্ত এলাকায় ট্রেনে কেটে মৃত্যুর ঘটনা বেড়েছে।
এদিকে গত বৃহস্পতিবার ট্রেনে কাটা পড়ে রাজধানীর উত্তরায় রেললাইন পার হওয়ার সময় অজ্ঞাতপরিচয় এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। সকাল সোয়া ১০টার দিকে উত্তরা ৮ নম্বর সেক্টর জয়নাল মার্কেট রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বোরকা পরিহিত ওই তরুণীর বয়স আনুমানিক ৩০ থেকে ৩২ বছর। বিমানবন্দর পুলিশ ফাঁড়ির (এএসআই) মো. মহিউদ্দিন গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 
এর আগে (০২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে আমিন বেপারী (৩৬) নামে এক রেলওয়ে কর্মচারী নিহত হয়েছেন। নিহত ওই ব্যক্তি রেলওয়ের ওয়েম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই মহিউদ্দিন জানান, সকালে বনরুপা রেললাইন এলাকায় কাজ করছিলেন আমিন। এ সময় ঢাকার কমলাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়া মহুয়া এক্সপ্রেস নামের ট্রেনের ধাক্কায় ঘটনাস্থলে মারা যান তিনি। 
(৪ ফেব্রুয়ারি) নরসিংদীর রায়পুরার আমিরগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ৪৫ বছর বয়সী অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ব্যক্তির একটি হাত ট্রেনের চাকার সঙ্গে আটকে প্রায় ৭ কিলোমিটার দূরে আরশীনগর রেলক্রসিং এলাকায় গিয়ে পড়ে। রেলস্টেশনটির আউটার এলাকা থেকে ছিন্নবিচ্ছিন্ন অবস্থায় ওই লাশ উদ্ধার করা হয়।
আমিরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার গোলাম নবী জানান, "কয়েকজন রেলকর্মী রেললাইন পর্যবেক্ষণ করার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ওই ব্যক্তির ছিন্নবিচ্ছিন্ন লাশ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে ঘটনাটি দ্রুত নরসিংদীর রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়িকে জানালে তারা এসে লাশ উদ্ধার করে।"
(৬ জানুয়ারি) বিকেলে সদর উপজেলার ঘারিন্দা রেলক্রসিংয়ের দক্ষিণপাশে এ ঘটনা ঘটে। টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার শাহিন মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। শাহিন মিয়া জানান, ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে ওই নারীর মৃত্যু হয়। রেল পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। পরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বাড়ি থেকে অভিমান করে এসে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।’
সবশেষ রাজধানীর মগবাজার ওয়্যারলেস রেলগেট এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে মাহমুদুল হাসান (৩১) নামের এক সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
এভাবে বছরজুড়েই ঢাকাসহ সারাদেশে রেলে কাটা পড়ে বিভিন্ন বয়সের মানুষকে মৃত্যু বরণ করতে হচ্ছে। এসব মৃত্যুর পেছণে কোনো কারণ আছে কি-না তা অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে খুঁজে বের করা দাবী জানিয়েছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। 

মন্তব্য