ঢাকা বৃহষ্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২২

ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত আয়েশা আক্তার আশা


তোফাজ্জল হোসেন শিহাব, মুন্সীগঞ্জ photo তোফাজ্জল হোসেন শিহাব, মুন্সীগঞ্জ
প্রকাশিত: ৩-১০-২০২২ দুপুর ১১:৫৬

ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হয়েছেন আয়েশা আক্তার আশা। তিনি কেরানীগঞ্জ উপজেলার ব্রাহ্মণগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আয়েশা আক্তার আশা ২০০৮ সালে কেরানীগঞ্জ উপজেলার রুহিতপুর ইউনিয়নের লাখির চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে যোগদান করেন। 

এরপর ২০০৯ সালে কোন্ডা ইউনিয়নের দক্ষিণ পানগাঁও  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১৭ সালে কোন্ডা ইউনিয়নের ব্রাহ্মণগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তার জন্মস্থান নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলা। তার বেড়ে উঠা পৈত্রিক নিবাস ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ উপজেলার কালিন্দী ইউনিয়ন এর খালপাড় চড়াইল শেখ ভিলায়। শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি বিজ্ঞানের প্রশিক্ষক এবং বিজ্ঞান বিষয়ের প্রধান পরীক্ষক হিসেবে দীর্ঘ দিন অত্যন্ত সুনামের সাথে কাজ করছেন। 

আয়েশা আক্তার আশা তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় সর্বোচ্চ মনযোগ দেয়ার পাশাপাশি সহপাঠ্যক্রমিক কার্যক্রমেও গুরুত্ব দিয়ে থাকি যাতে শিক্ষার্থীদের সামগ্রিক বিকাশ ঘটে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের পোশাক, পরিবেশ, খেলাধুলা, সংস্কৃতি সবখানে কৃতিত্ব স্বাক্ষর আছে। 

পাশাপাশি বিদ্যালয়ে গড়ে তুলেছি বিভিন্ন ধরনের শিশুতোষ গ্রন্থসহ বুক কর্নার, চমৎকার ছাদবাগান, সততা স্টোর, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নার, সুসজ্জিত শ্রেণিকক্ষ, কিডস ওয়ার্ল্ড কাম প্রি প্রাইমারি ক্লাসরুম, অবকাঠামো উন্নয়নসহ বিদ্যালয় সংলগ্ন ঝুঁকিপূর্ণ ডোবা ভরাট করে বিশাল মাঠে রুপান্তর। করোনাকালীন দীর্ঘ বিরতির পর বিদ্যালয় পুনরায় খোলার পর নিপুনভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয় পরিচালনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ বিবেচনায় রেখে শিখন ঘাটতি পূরনে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি। 

তিনি বলেন, শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের যে সম্মান সেটি অনেক বড় পাওয়া। এটি আমাকে আরও ভালো কাজ করতে এবং প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে আরও বেশি ভূমিকা রাখতে উদবুদ্ধ করবে। এটা আমার জন্য খুবই উৎসাহব্যঞ্জক। তিনি নিজের সাফল্যের জন্য সর্বাগ্রে মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন  করার পাশাপাশি স্বামী, সন্তান, বিদ্যালয়ের সহকর্মী ও শিক্ষার্থী, অভিভাবক, এস এম সি সদস্যবৃন্দ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার  এবং উপজেলা প্রশাসন এর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। 

তিনি বলেন, এ পুরস্কার প্রাপ্তির মাধ্যমে দায়িত্বটা আরও  বেড়ে গেলো।  আমি প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে আরও ভূমিকা রাখতে চাই। আমি কেরানীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা পরিবার এর একজন সদস্য হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। আমাকে এতদূর নিয়ে আসার জন্য যারা সব সময় সহযোগিতা ও উৎসাহ জুগিয়েছেন তাদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ থাকব। কেরানীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা  আবদুল কাদের মিয়া তার পারফরম্যান্স এ খুবই সন্তুষ্ট। 

বিদ্যালয় এর অভিভাবকবৃন্দ বলেন, আয়েশা আক্তার আশা একজন শিক্ষার্থীবান্ধব শিক্ষক। তিনি বিদ্যালয়ে শুধু সময় আর শ্রমই দেননা তিনি মাতৃস্নেহের সাথে তার দায়িত্ব পালন করেন। অসুস্থ শিক্ষার্থীর প্রাথমিক চিকিৎসা, সকালে নাস্তা না করে আসা শিক্ষার্থী কিংবা দুপুরের খাবার না আনা শিক্ষার্থী সবার নির্ভরতার নাম সবার প্রিয় নাম " হেড ম্যাডাম"। শিক্ষা জীবনে তিনি ঢাকা বিশবিদ্যালয় থেকে পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন।

প্রীতি / প্রীতি

কেন্দ্রীয় সভাপতির মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে কুবির বঙ্গবন্ধু পরিষদ

ফারদিন হত্যার বিচারের দাবিতে বুয়েটে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

পবিপ্রবি স্কুল এন্ড কলেজে ‘সৃজনী বিদ্যানিকেতন’ কবিতা উৎসব অনুষ্ঠিত

চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে শেকৃবিতে মানববন্ধন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এন্টি র‌্যাগিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে ববি উপাচার্যের শোক

ইবির চতুর্থ মেধাতালিকা প্রকাশ, ১২ ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তির নির্দেশ

শতাধিক নেতাকর্মী নিয়ে কেন্দ্রীয় সম্মেলনে পবিপ্রবি ছাত্রলীগের অংশগ্রহণ 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কর্মসূচি

ইবিতে ছাত্রমৈত্রীর ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

হাবিপ্রবিতে নবীন শিক্ষকদের সংবর্ধনা দিয়েছে গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদ

রাবিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রাজনৈতিক চিন্তা বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

যৌন নিপীড়ক জাবি শিক্ষকের অব্যাহতি দাবিতে মানববন্ধন