ঢাকা রবিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২২

বাইডেনের বাধ্যতামূলক টিকা নীতি সুপ্রিমকোর্টে স্থগিত


সকালের সময় ডেস্ক photo সকালের সময় ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪-১-২০২২ বিকাল ৬:১১

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বাধ্যতামূলক ‘টিকা নিন অথবা নিয়মিত টেস্ট করান’ নীতি আটকে দিয়েছে দেশটির সুপ্রিমকোর্ট। ‘বহু মার্কিন নাগরিক দৈনন্দিন জীবনে হয়রানির শিকার হবেন’- যুক্তিতে বৃহস্পতিবার ওই নীতির ওপর স্থগিতাদেশ দেয় দেশটির সুপ্রিমকোর্ট।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছিলেন, বড় কোম্পানিগুলোর কর্মীদের টিকা নিতে হবে আর যারা টিকা নেয়া থেকে বিরত থাকবেন তাদের সার্বক্ষণিক মাস্ক পরা ও প্রতি সপ্তাহে কোভিড শনাক্ত পরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক। বর্তমান মার্কিন প্রশাসন এই নীতিকে অবলম্বন করেই অগ্রসর হচ্ছে বলে ঘোষণায় উল্লেখ করেছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবারের (১৩ জানুয়ারি) আদেশে সুপ্রিমকোর্ট বলেছে, সর্বোচ্চ আদালতের বিচারকরা বলছেন, টিকা বাধ্যতামূলক করার এ পদক্ষেপ বাইডেন প্রশাসনের কর্তৃত্বের সীমা অতিক্রম করেছে। তবে ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রসমূহের কর্মীদের ক্ষেত্রে টিকা বাধ্যতামূলক নীতিতে আদালত সাঁয় দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বাইডেনের প্রস্তাবিত টিকা, নয়তো প্রতি সপ্তাহে কর্মীদের শনাক্তকরণ পরীক্ষার নিয়ম কার্যকর হতো ১০০’র বেশি কর্মী আছে সেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জন্য। এই নীতি কার্যকর হলে তা যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কোম্পানির ৮ কোটির বেশি কর্মীর ওপর প্রভাব ফেলত। এ নিয়ম ভঙ্গ করলে প্রতিষ্ঠানগুলোকে বড় অংকের জরিমানা করারও পরিকল্পনা ছিল।

বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্টের বিচারকরা ৬-৩ ভোটে এই নীতির বিপক্ষে অবস্থান নেন। সুপ্রিমকোর্টের সংখ্যাগরিষ্ঠ রক্ষণশীল বিচারকদের ভাষ্য, কোভিড-১৯-এর ঝুঁকির সঙ্গে অপরাধ, বায়ুদূষণ কিংবা অন্যান্য সংক্রামক রোগের কারণে দৈনন্দিন যেসব বিপদের মুখে পড়তে হয়, সেসবের ঝুঁকির কোনো পার্থক্য নেই। যে কারণে বাইডেনের টিকা নীতিকে অসংখ্য মার্কিনির দৈনন্দিন জীবন ও স্বাস্থ্যের ওপর ‘অনুচিত হস্তক্ষেপ’ হিসেবে বিবেচনা করেছেন তারা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ সম্পর্কে বলা হয়, সুপ্রিমকোর্টে কর্মরত জ্যেষ্ঠ বিচারকদের একটি বড় অংশই এখন পর্যন্ত রক্ষণশীল রিপাবলিকান ঘরানার। ফলে ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের এই নীতির ওপর স্থগিতাদেশ আসা খুব ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ কোনো ব্যাপার নয়।

আদালতের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় হতাশা প্রকাশ করলেও তা মেনে নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এ সম্পর্কিত এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘সহজ ও কার্যকর উপায়ে কী করে কর্মীদের টিকা দেয়া যায় তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার ভার এখন বিভিন্ন রাজ্য ও নিয়োগকর্তাদের।’ তবে স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক টিকা নীতি বহাল রাখার জন্য সুপ্রিমকোর্টকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন জো বাইডেন।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) এ বিষয়ক এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, আগামী ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার আগেই সরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রসমূহের সব কর্মীকে করোনা টিকার ডোজ সম্পন্ন করতে হবে।

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অবশ্য সুপ্রিমকোর্টের বৃহস্পতিবারের সিদ্ধান্তে উচ্ছ্বসিত প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। ফ্লোরিডায় বসবাসরত ট্রাম্প তাৎক্ষণিক ‍এক প্রতিক্রিয়া সংবাদিকদের বলেন, ‘পিছু না হটায় সুপ্রিমকোর্টকে নিয়ে আমরা গর্বিত। (টিকা) বাধ্যতামূলক করা যাবে না।‘

জামান / জামান