ঢাকা সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

দর্শক চাহিদা তুঙ্গে 'পরাণ'


বিনোদন ডেস্ক photo বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৫-৮-২০২২ বিকাল ৬:৪০
ঝরাজীর্ণ প্রেক্ষাগৃহের আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে। দীর্ঘদিন পরে প্রেক্ষাগৃহে দশর্ককের ভিড় আর টিকেটের জন্য দীর্ঘ লাইন দেখা গিয়েছে। আর এর শুরুটা হয়েছে ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘পরাণ’ সিনেমার মধ্য দিয়ে। এই সিনেমাটির চলচ্চিত্র শিল্পের গতি এনে দিয়েছে। 
 
অল্প কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলেও দিন দিন সিনেমাটির দর্শকপ্রিয়তা বাড়তে থাকে। সঙ্গে বাড়তে থাকে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যাও। সেই ধারাবাহিকতায় আজ শুক্রবার 'পরাণ' মুক্তির পঞ্চম সপ্তাহ শুরু হয়। দীর্ঘদিন পর দেশের কোনো সিনেমা টানা ৫ সপ্তাহ প্রদর্শনীর রেকর্ড গড়ল।এই সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, ৫ আগস্ট ঢাকাসহ সারাদেশের ৪৫টি প্রেক্ষাগৃহে চলছে সিনেমাটি।
 
ঈদুল আজহায় মাত্র ১১টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। মুক্তির পরই সিনেমাটি দর্শক মহলে সাড়া জাগায়। বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে টিকিট না পেয়ে অপেক্ষা করতে হয় দর্শকদের। বাধ্য হয়ে সিনেপ্লেক্স শো সংখ্যা বাড়িয়ে প্রতিদিন ১৮ শো করে। দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে এর হল সংখ্যা এক লাফে দাঁড়ায় ৫৫টি। তৃতীয় সপ্তাহে এসে হল সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬০টি। বাংলা চলচ্চিত্রের জন্য ‘পরাণ’ সুবাতাস তাতে কোনো সন্দেহ নেই, বাংলা সিনেমার যেন জয়জয়কার শুরু হয়েছে। 
দেশীয় সিনেমায় ব্যবসা্ নেই এমন কথা মিথ্যে প্রমাণ করে দিল লাইভ টেকনোলজির ‘পরাণ’ সিনেমা। ‘পরাণ’ শুধু নিজেরাই ব্যাবসায়িকভাবে সফল হয়েছে তা নয়,  ইন্ডাস্ট্রির ব্যবসায়িক গতি পরিবর্তন করেছে।গত সপ্তাহে মুক্তি পাওয়া ‘হাওয়া’ সিনেমা নিয়েও তৈরি হয়েছে দর্শকদের আগ্রহ। দেশীয় সিনেমার প্রতি দর্শকদের আগ্রহ তৈরি হয়েছে বলে মনে করছে চলচ্চিত্র বোদ্ধারা। 
 
‘পরাণ’ সিনেমাটি প্রযোজনা করেন লাইভ টেকনোলজি।প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ইয়াসির আরাফাত জানান, আমাদের হিট একটি কনটেন্ট ‘পরাণ’।এজন্য সিনেমার পরিচালক রায়হান রাফি, সিনেমার কলাকুশলী এবং অবশ্যই দর্শকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই।দেশের প্রেক্ষাগৃহে যে দর্শক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে, এতে সিনেমাটি হলে আরও অনেক দিন প্রদর্শিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।এখনও সেলস বাম্পার, রিপোর্ট শো করব আমরা এই সপ্তাহে। ‘পরাণ’ সিনেমা ‘মনপুরা’র পর নতুন রেকর্ড গড়তে যাচ্ছে।এই সিনেমা দর্শক চাহিদা এখন তুঙ্গে।
 
লাইভ টেকনোলজির ত্রিভুজ প্রেমের ‘পরাণ’ সিনেমার প্রধান তিনটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরীফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোহান।এটি পরিচালনা করেছেন রায়হান রাফী।

এমএসএম / এমএসএম