ঢাকা শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২

ট্রমা কাটাতে মোবাইল-পত্রিকা দেওয়া হচ্ছে না রনিকে


বিনোদন ডেস্ক photo বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১-৯-২০২২ বিকাল ৫:৫৯

কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও পুলিশ কনস্টেবল জিল্লুরের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি হয়েছে। আজ (২১ সেপ্টেম্বর) তাদের রেডিওলোজী পরীক্ষা ও রক্তের একাধিক পরীক্ষা করা হয়েছে। মানসিকভাবে যাতে তারা চাঙ্গা ও শক্ত থাকেন, সেজন্য তাদের পত্রিকা ও মোবাইল সরবরাহ করা হচ্ছে না।

চিকিৎসকরা বলছেন, রনি আগের তুলনায় ভালো আছেন। স্বাভাবিক খাবার খাচ্ছেন এবং কথা বলছেন। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে আরও কমপক্ষে ৩ সপ্তাহ চিকিৎসকদের পরিচর্যায় থাকতে হবে তাদের। উল্লেখ্য কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল মো. জিল্লুর রহমান শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার দুপুরে ইনস্টিটিউটের এইচডিইউ বিভাগে গিয়ে দেখা যায়, চিকিৎসকদের অনুমতি ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। নিকটাত্মীয়দেরও সাক্ষাতে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসকরাও কথা বলতে নারাজ।

পরে যোগাযোগ করা হলে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডাক্তার এস এম আউয়ুব হোসেন বলেন, কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল জিল্লুরের শারীরিক অবস্থা জানতে আজ বোর্ডের সদস্যরা দেখা করেছেন। তারা গতকালের তুলনায় ভালো আছেন। তাদের আজ রেডিওলোজী পরীক্ষা করা হয়েছে। রক্তের একাধিক পরীক্ষা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, শুরুতেই রনি ও কনস্টেবল জিল্লুরের শ্বাসনালীর বার্ন নিয়ে আমরা ভয়ে ছিলাম। ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণের আগে কিছু বলা সম্ভব ছিল না। তবে এখন তাদের দুজনই শ্বাসনালীর বার্ন থেকে মুক্ত। আর ভয় নেই। শ্বাসনালীর ক্ষত কাটিয়ে উন্নতি হচ্ছে। আশা করি, দ্রুতই আরও উন্নতি হবে।

ডাক্তার আইয়ুব বলেন, যেকোনো বার্ন রোগীর মধ্যে ট্রমা তৈরি হতে পারে। আর রনি তো দেশের সম্পদ। অনেক মানুষ তার খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। তার স্বাস্থ্যগত দিক বিবেচনায় অধিক সতর্কতা অবলম্বন করতে হচ্ছে। টিভি, পত্রিকা কিংবা মোবাইলে কিছু দেখে তারা যেন আতঙ্কিত না হন, ট্রমায় না ভোগেন সেজন্য এসব থেকে তাদের দূরে রাখা হয়েছে। তাদের মানসিক অবস্থা এখন অনেক ভালো।

সংক্রমণ শঙ্কায় বাইরের কারো সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দেওয়া হচ্ছে না উল্লেখ করে ডা. আইয়ুব বলেন, আপাতত রনিদের দ্রুত সুস্থতাই জরুরি। আমরা সেদিকটায় বেশি মনোযোগী। সংক্রমণ যেন না হয় সেজন্য সাবধানতা অবলম্বন করা হচ্ছে। নিকটাত্মীয়দের সাক্ষাতেও কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

গত শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের চতুর্থ বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে মঞ্চের পেছনে গ্যাসের বেলুন বিস্ফোরণে আহত হন কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনিসহ ৫ জন। এদের মধ্যে রনি ও কনস্টেবল জিল্লুরকে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। প্রথমদিকে রনির অবস্থা আশঙ্কাজনক বলা হচ্ছিল। তবে এখন চিকিৎসকরা বলছেন তিনি শঙ্কামুক্ত। বিস্ফোরণে আবু হেনা রনির ২৫ শতাংশ এবং কনস্টেবল জিল্লুর রহমানের দেহের ১৯ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

প্রীতি / প্রীতি