একই সাথে অভিনেতা, সহকারী পরিচালক, স্ক্রিপ্ট রাইটার হিসাবে পরিচিত জারিফ।

news paper

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ৯-৫-২০২৩ দুপুর ২:৪৩

32Views

ঈদের ব্যস্ততার মাঝে মুক্তি পেয়েছে সামিন জারিফ এর অভিনীত ৮ টি নাটক। পাশাপাশি ব্যস্ততা ছিলো পরিচালনার কাজে। অভিনয়ের সাথে সহকারি পরিচালক হিসেবেও কাজ করেছেন বেশ কিছু নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন নাটক এবং ছোট গল্প লিখতে ভালবাসেন। সামিন জারিফের নিজের লেখা প্রায় শতাধিক স্ক্রিপ্ট রয়েছে।

ঈদে মুক্তি পাওয়া তার অন্যতম কিছু নাটক: [এক্স, উরাধুরা প্রেম, চাকরি কোনো ব্যাপার না, মুখোশ, দুই নাম্বার জামাই, কুলাঙ্গার, সরি মা, মহল্লার ওয়ার্ল্ড কাপ, ডুপ্লিকেট] সহ আরো বেশ কয়েকটি নাটক। সামনে আরো ভালো কিছু নাটক আসতেছে বলেও জানান তিনি।

পাশাপাশি তিনি বর্তমানে নাটকে কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন ফেসবুক পেজের শর্ট ফিল্মে অভিনয় করতেও দেখা যাচ্ছে জারিফকে। RMS Motivation, Amazing Earth, Evergreen Videos, Minara Multimedia, 555 Media  সহ আরো কিছু পেজে নিয়মিত মুখ ঢাকার এই তরুণ।

সামিন জারিফ বর্তমানে সরকারি তিতুমীর কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। অভিনয় এবং পড়ালেখার পাশাপাশি একজন তুখোর বিতার্কিক হিসেবেও সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি। স্কুল জীবন থেকেই তিনি বিতর্ক করেন এবং বেশ কিছু জাতীয় পর্যায়ের বিতর্কেও অংশ নেন তিনি। তিনি মনে করেন তার স্পষ্ট এবং দ্রুত বাচন ভঙ্গি অভিনয়ের পিছনে কৃতিত্ব তার ডিবেট ক্লাবগুলোর।

২০১২ তে পি.এস.সি এবং ২০১৫ তে জে.এস.সি পাশ করেন খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ২০১৮ তে মাধ্যমিক পাশ করেন সফিউদ্দিন সরকার একাডেমী টঙ্গী, গাজীপুর থেকে। ২০২০ তে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে।

সামিন জারিফ পরিচিত হওয়ার পিছনের গল্পটা ভিন্ন। ছোটবেলা থেকেই তার তীব্র ইচ্ছা ছিল মিডিয়াতে আসার। সেই স্বপ্নটাকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২৯ জুলাই,২০১৮ তে একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলা হয় The FaforBazz Ltd নামে।পরবর্তীতে চ্যানেলের নাম পরিবর্তন করে  Samin Jarif Official  রাখা হয়। প্রথম এক বছর অনেক পরিশ্রম করে ভিডিও বানিয়ে নিজেই সে ভিডিও এডিট আপলোড দেওয়ার পরেও ভিউ হচ্ছিল না, বিভিন্ন ক্যাটাগরির (শর্ট ফিল্ম, ব্লগ, ফানি ভিডিও, প্রাঙ্ক কল, মোটিভেশনাল) কনটেন্ট বানিয়ে নিজেকে উপস্থাপন করার চেষ্টা ছিল তার।

ক্যামেরা কেনার মতো সামর্থ্য না থাকায় মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও ধারণ করতো। বেশ কিছুদিন ইউটিউবে ভিডিও আপলোড দেওয়ার পর জারিফ খেয়াল করলো, অনেকেই টিকটকে ভিডিও বানাচ্ছে। জারিফ শখের বসে টিকটক আইডি খুলে টুকটাক ভিডিও করতো,কিন্তু তাতে ছিলনা কোন ভিউ। টিকটক ভিডিও দেখে হঠাৎ তার মাথায় আসলো অন্যরকম কিছু করার। টিক টকে তখন তেমন কোনো রোস্টার ছিল না, যারা কিনা টিকটক এর অসামাজিক ভিডিও বিরুদ্ধে কথা বলবে।

সামিন জারিফ তখন টিকটকের নামমাত্র ভিডিওগুলা সংগ্রহ করে সেগুলাকে নিয়ে সমালোচনামূলক ভিডিও বানানো শুরু করে ভিউয়ার দেরকে বিনোদন দেওয়ার লক্ষ্যে। এবং পরবর্তীতে তিনি নিজের করা সমালোচনামূলক ভিডিও তৈরির মাধ্যমেই পরিচিতি লাভ করে। টিকটকে তার সর্বোচ্চ ভিউ পাওয়া ভিডিওটি ছিল ৩৩.৬ মিলিয়ন। এবং আইডিতে ফলোয়ার্স ছিল ৪ লাখের অধিক।রোস্টিং ভিডিও করা টিকটক কমিউনিটি গাইড লাইনসের বাইরে বিধায় তার প্রথম টিকটক আইডিটি ব্যান হয়। সে আবার নতুন করে সবকিছু শুরু করে,  বর্তমানে তার আইডিতে ভক্তের সংখ্যা দেড় লাখের অধিক।পরবর্তীতে তিনি তার ইউটিউব চ্যানেলেও রোস্টিং শুরু করে।তিনি জানান তার প্রথম ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ১লক্ষ ৩৮ হাজার এবং দ্বিতীয় ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ৮ হাজার। বর্তমানে এর  পাশাপাশি তিনি অভিনয় করছেন বিভিন্ন নাটকে, ফেসবুক পেজে, ইউটিউব চ্যানেলে।

ছুটির দিনগুলোতেও তিনি নিজেকে বিভিন্ন কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখতে চান। শুটিং এবং মিডিয়া সম্পৃক্ত কাজ করার মধ্যেই তিনি আনন্দ খুঁজে পান। ভবিষ্যতে তার ইচ্ছা ওটিটি এবং মুভি ইন্ডাস্ট্রিতে প্রবেশ করার। পেশা হিসেবে অভিনয়টাকে বেছে নিতে চান তিনি। জারিফ আরো জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে মিডিয়া ইন্ডাস্ট্রি এবং তার ভক্তদের নতুন কিছু উপহার দেওয়াই তার লক্ষ্য।


আরও পড়ুন