কবরস্থানের পাশে অজ্ঞান অবস্থায় পড়েছিল আ’লীগ নেতা, উদ্ধারে আসেনি পুলিশ

news paper

ফরমান শেখ, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯-৯-২০২৩ দুপুর ৪:২৭

12Views

অপহরণের দুই দিনপর টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মো. শাহ্ আলম সরকার (৪৭) নামে এক আওয়ামী নেতাকে কবরস্থানের পাশ থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। 

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ভোর ৬ টার দিকে ভূঞাপুর-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব আঞ্চলিক মহাসড়কের ভূঞাপুর পৌর এলাকার ছাব্বিশা কবরস্থানের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয়। 

শাহ্ আলম সরকার ঘাটাইল উপজেলার লোকেরপাড়া ইউনিয়নের আথাইল শিমুল গ্রামের আব্দুল মজিদ সরকার (মন্টুর) ছেলে। তিনি লোকেরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ভূঞাপুর ল্যাব ওয়ান ক্লিনিকের মালিক বলে যায়। 

প্রত্যক্ষদর্শী ছাব্বিশা গ্রামের রায়হান তালুকদার রাসেল জানান, ভোরে ঘুম থেকে উঠে দেখি বাড়ির পাশে কবরস্থানের পাশে কিছু সংখ্যক মানুষকে হাক-ডাক করতে শুনি। সেখানে গিয়ে দেখি এক ব্যক্তি অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে। ৯৯৯- এ কল করলে পুলিশ উদ্ধার করতে না এসে জানায় ওই ব্যক্তিতে হাসপাতালে নিয়ে আসতে। 

পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্যকপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরতরা নানা হয়রানির একপর্যায়ে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। উদ্ধাররত পরিচয় শনাক্তের পর স্বজনদের খবর দিলে তারা এসে টাঙ্গাইল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শাহ্ আলমের বরাত দিয়ে চাচাতো ভাই ওমর ফারুক বলেন, গত ১৭ সেপ্টেম্বর সকালে ঘাটাইলের নিজ বাসা থেকে ভূঞাপুর ল্যাব ওয়ান ক্লিনিকে আসার জন্য রওনা হন তিনি। পরে তাকে পেছন থেকে বেশ কয়েকজন লোক চোখ বেঁধে অপহরণ করে এবং অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার ভোরে হাত-পা বাঁধাসহ অচেতন অবস্থায় ভূঞাপুর উপজেলার ছাব্বিশা গ্রামের কবরস্থানের পাশ থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা। 

এ ব্যাপারে ভূঞাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আহসান উল্লাহ্ বলেন, হাত-পা বাঁধা অজ্ঞান অবস্থায় কাউকে উদ্ধার এবং ৯৯৯-কল করে থানা পুলিশের সহযোগিতা পায়নি এমন বিষয়টি জানা নেই। 


আরও পড়ুন